TT Ads

বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটনে সেরা গন্তব্যের স্বীকৃতিতে আবারো মালদ্বীপ। আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউ-কে ফুড অ্যান্ড ট্রাভেলস ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডস ২০২২ সালে মালদ্বীপকে ‘বছরের সেরা লং-হল ডেস্টিনেশন’ হিসেবে মনোনীত করে।

বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটন সূচকে মালদ্বীপের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে কানাডা, ইকুয়েডর, ফিজি, জাপান, নামিবিয়া, সেশেলস, দক্ষিণ আফ্রিকা, দক্ষিণ কোরিয়া এবং ক্যারিবিয়ানের মতো ভাগা ভাগা দেশগুলো। এ সকল দেশগুলোকে পিছনে পেলে বছরের সেরা দূরপাল্লার গন্তব্যের চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে বহু দ্বীপের সমাহার দেশটি।

এতে আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউ-কে ফুড অ্যান্ড ট্রাভেলস ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডসের বিষয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয় ‘গ্যাস্ট্রোনমিক’ বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ভ্রমণ প্রকাশনাগুলির মধ্যে একটি। এছাড়াও যুক্তরাজ্যের ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল ম্যাগাজিনের সাতটি বিশ্বব্যাপী সংস্করণ রয়েছে, যা গত ২৫ বছর ধরে গ্রিন পি পাবলিশিং লিমিটেড দ্বারা প্রকাশিত হয়ে আসছে। চলতি বছরের জানুয়ারীর শেষের দিকে লন্ডনের রয়্যাল অটোমোবাইল ক্লাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই পুরষ্কারগুলি উপস্থাপন করা হয়।

প্রতিবেদনে করোনাভাইরাস মহামারি ধাক্কার পর বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটন খাতের পুনরুদ্ধারের তথ্য উঠে এসেছে। এতে বলা হয়েছে, এ খাতে বিশ্ব পুনরুদ্ধার হলেও এর গতি মন্থর এবং অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। অপরদিকে মালদ্বীপ এই চ্যালেঞ্জে সফলতা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভ্রমণ ও পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন, টেকসই ব্যবস্থা এবং নিরাপত্তা ও স্থিতিস্থাপকতার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে নির্বাচিত করে ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডস প্রকাশনা প্রতিষ্ঠার পর থেকে।

ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ড আতিথেয়তা এবং ভ্রমণের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। যেমন, শীর্ষস্থানীয় খাবারের দোকান, শেফ, হোটেল, অবস্থান, ট্যুর গাইড, ক্রুজ লাইন এবং এয়ারলাইন্স সহ ২৩টি বিভাগে সম্মাননা প্রদান করে, এটি পর্যটন খাতের খাদ্য ও পানীয় শিল্পের “ক্রেম দে লা ক্রেম” কে সম্মান ও স্বীকৃতি দেয়।

সেরা গন্তব্যের দেশ হিসেবে পর্যটকদের মান বজায় রাখার জন্য মালদ্বীপের (এমএমপিআরসি) কোম্পানি গত বছরে শেষের দিকে বেশ কয়েকটি ইভেন্টের আয়োজন করেছিল। এর মধ্যে মালদ্বীপের (WTM) কোম্পানি লন্ডন ২০২২-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য প্রদর্শনীতে যোগ দেয় এবং পরিচিতি পরিদর্শনের সাথে লন্ডন, ম্যানচেস্টার এবং নিউক্যাসেলে গন্তব্যের রোডশোতে অংশগ্রহণ করেন।

এতে উভয়ে দেশের সংস্থা ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের মতো যৌথ বিপণন উদ্যোগেও অন্তর্ভুক্ত ছিল। এছাড়াও চলতি বছরে এমএমপিআরসি-এর অনেক অনুরূপ ইভেন্ট নির্ধারিত রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন।

প্রসঙ্গত, ২০২২ এছাড়াও মালদ্বীপ ২২-এর ওয়ার্ল্ড ট্র্যাভেল অ্যাওয়ার্ডে “ওয়ার্ল্ডস লিডিং ডেস্টিনেশন” খেতাব জিতেছে টানা তৃতীয় বছরের জন্য। যা প্রথম কোনো ইভেন্টে মালদ্বীপের ইতিহাসে (MMPRC) এর ঐতিহাসিক “ওয়ার্ল্ডস লিডিং ট্যুরিস্ট বোর্ড”-এর গুরুত্বপূর্ণ খেতাব অর্জন করা।

TT Ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *