রাশিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘটনায় পশ্চিমাদের হুঁশিয়ারি করে দিয়েছেন বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো। তিনি বলেন, এমন পদক্ষেপ রাশিয়াকে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিতে পারে।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) তিনি বলেন, ব্যাংক খাত, গ্যাস, তেল, সুইফটের বিরুদ্ধে অনেক কথা শোনা যাচ্ছে। যুদ্ধের চেয়ে যা আরও ক্ষতিকর। এসব পদক্ষেপ রাশিয়াকে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে ঠেলে দিতে পারে।
রাশিয়ার ব্যাংক খাতকে নিষেধাজ্ঞার লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা। তারা মস্কোকে আন্তর্জাতিক লেনদেন ব্যবস্থা সুইফট থেকে বের করে দিতে চাচ্ছে। লুকাশেঙ্কো বলেন, অতীতে এসব পদক্ষেপকে যুদ্ধ ঘোষণা হিসেবে বিবেচনা করা হতো।

বেলারুশের নেতা বলেন, সীমান্ত দেশগুলোতে যদি পশ্চিমারা পরমাণু অস্ত্র স্থাপন করে, তবে বেলারুশেও পরমাণু বোমা ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

এদিকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ইউক্রেনের উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ইভজেনি ইয়ানেন বলেন, স্থানীয় সময় সোমবার সকালে দুই দেশের প্রতিনিধিরা বৈঠকে বসবেন।

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো রোববার সকালের দিকে তাকে ফোন দিয়েছিলেন। এ সময়ে কোনো ধরনের পূর্বশর্ত ছাড়াই ইউক্রেন-বেলারুশের সীমান্তের প্রিপায়েত নদীর কাছে বৈঠকে বসতে রাজি হওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রতিনিধিদের ভ্রমণের সময় বেলারুশ ভূখণ্ডের সব বিমান, হেলিকপ্টার ও ক্ষেপণাস্ত্র যে অবস্থায় আছে, সে অবস্থায়ই থাকবে।

এদিকে রাশিয়া ও ইউক্রেনের প্রতিনিধিদের বৈঠক কোথায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, তা নিয়ে কিছুটা বিভ্রান্তি রয়েছে। মস্কোতে আল-জাজিরার প্রতিবেদক ডোরসা জাবারি বলেন, ইউক্রেন-বেলারুশের সীমান্তে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু রাশিয়ানরা বলছেন, তারা মনে করেন, বেলারুশের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর গোমেলে বৈঠক হবে।

রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনায় বসতে বেলারুশের গোমেল শহরে পথে রয়েছেন ইউক্রেনের প্রতিনিধিরা। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সহযোগী ও প্রতিনিধি দলের প্রধান ভ্লাদিমির মেডিনস্কি এমন দাবি করেছেন।

থেমে নেই সিগারেট কোম্পানিগুলোর লাভের পরিমাণ। সংকটকালীনও বছরের তৃতীয়ার্ধে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর (ব্যাট) লাভ হয়েছে ৪০৯ কোটি ৮৬ লাখ টাকা, যা আগের বছরের তৃতীয়ার্ধে ছিল ২৯৪ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

লাভের পাশাপাশি শেয়ারবাজারেও বেড়েছে ব্যাটের শেয়ারের দাম। ২০২১ সালে যেখানে প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে আয় ছিল ৫ দশমিক ৪৫ টাকা, চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে এসে তা দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৫৯ টাকা।

সম্প্রতি ব্যাটের একটি খসড়া প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে কোম্পানিটির লাভ হয়েছে ১ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা। ২০২১ সালের প্রথম নয় মাসে এ লাভের অঙ্ক ছিল ১ হাজার ১৫৬ কোটি টাকা।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে ব্যাটের প্রতিটি শেয়ারের দাম বেড়েছিল ৬৮ দশমিক ১৩ টাকা, যা চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে দাম বেড়েছে ৭৭ দশমিক ৬৫ টাকা।

এদিকে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ জানিয়েছে, শেয়ারবাজারে তারা তৃতীয় ত্রৈমাসিকের আর্থিক বিবরণীর ওপর ভিত্তি করে একশ শতাংশ অন্তর্বর্তীকালীন নগদ লভ্যাংশ দেবে; যা গত বছরের তুলনায় অনেক বেশি।

রমজানের পূর্বে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও মালদ্বীপের হাউসিং ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের উদ্যোগে শুরু হয়েছে নাইট বিজনেস শো।

মালদ্বীপের রাজধানীর পার্শ্ববর্তী আইল্যান্ড হূলোমালে অনুষ্ঠিত দশ দিনব্যাপী এই নাইট মেলায শুরু হয় ৯ মার্চ। এতে মালদ্বীপের সর্বস্তরের জনগণ এবং বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা ও অংশগ্রহণ করেন।

মেলায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা পার্ট টাইম কাজ করার সুযোগ মেলেছে। মেলায় প্রতিটি স্টলে বাংলাদেশী কর্মীরা রয়েছেন। যার ফলে, প্রবাসী বাংলাদেশী ক্রেতাদের দর-দাম ঠিক করেই নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রিক কিনতে সুবিধা হয়।

নিম্ন আয়ের প্রবাসীরা এই মেলার অপেক্ষায় থাকেন। কারণ, মেলা ব্যতীত অন্যান্য সময় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য অনেক বেশি। এই মেলায় রয়েছে, মানুষের প্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য জামাকাপড় ছাড়াও ইলেকট্রনিক্স আইটেম সহজ যাবতীয় প্রয়োজনীয় বস্তু। যা অন্য সময়ের তুলনায় অর্ধে ক দামে কিনতে পারেন প্রবাসীরা।

মেলায় স্টলগুলোতে বাংলাদেশী খাবার প্রদর্শন করা হয়। এই খাবারের জন্য বাংলাদেশী প্রবাসীরা হুমরি খেয়ে ভিড় জমান।

মেলায় আসায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা মনে করেন, মেলার মাধ্যমে তারা বাংলাদেশের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের কথা মনে করিয়ে দেয়। এই মেলাতে বাংলাদেশের প্রবাসীরা খুঁজে পায় তাদের দেশীয় কালচার সাথে সাথেই দেশীয় বিভিন্ন খাবারের স্বাদ গ্রহণ করতে সক্ষম হয়।

প্রতিবেদন- ওমর ফারুক/মালদ্বীপ প্রবাসী

স্বাস্থ্য নিয়ে নতুন করে ভাবিয়ে তুলেছে বিশ্ববাসীকে একটি বিষয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রকাশিত তথ্য বলছে, বিশ্বে এখন মৃত্যু সংখ্যা যত তার অধিকাংশ মৃত্যুর কারণই হলো লবণ।

সংস্থাটি লবণের কারণে মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যাও দিয়েছে। তারা জানিয়েছে, বেশি লবণ খাওয়ার প্রবণতায় শরীরে সোডিয়ামের পরিমাণ বেড়ে যায়। আর এটিই ধীরে ধীরে হয়ে ওঠে মৃত্যুর কারণ।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে, সোডিয়াম শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানগুলোর একটি। তবে অত্যধিক পরিমাণে সোডিয়ামের উপস্থিতি শরীরের জন্য উপকারী নয় বরং ক্ষতিকর। কম বয়সে হৃদরোগ, স্ট্রোকের মাধ্যমে অকালমৃত্যুর কারণ শরীরে অত্যধিক পরিমাণে সোডিয়ামের প্রবেশ।

‘ইউরোপিয়ান হার্ট জার্নাল’-এ প্রকাশিত একটি সমীক্ষা বলছে, খাওয়ার সময় প্লেটে লবণ নেয়ার অভ্যাস মৃত্যুর ঝুঁকি প্রায় ২৪ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়।

এদিকে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’-র গবেষণায় উঠে এসেছে, দিনে পাঁচ গ্রামের বেশি লবণ খাওয়া মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। বিভিন্ন সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, যারা প্রতিদিনের  খাদ্যতালিকায় ১১ গ্রামের বেশি লবণ কান তারা যেকোনো সময় হারাতে পারেন মূল্যবান প্রাণ।

অনেকেই লবণের সোডিয়াম থেকে বাঁচতে বাজারের কম সোডিয়াম দেয়া লবণের প্যাকেট বেছে নেন। এতেও কি ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব হচ্ছে?

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে, এতেও কোনো কাজ হচ্ছে না। বরং এতে ঝুঁকি বাড়ছে কিডনি সমস্যার। পুষ্টিবিদরা বলছে, যেসব লবণের প্যাকেটে সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকে, সেগুলোতে আবার পটাশিয়ামের মাত্রা বেশি থাকে। শরীরে পটচাশিয়ামের পরিমাণ বেড়ে গেলে কিডনির ওপর চাপ পড়ে। যা পরবর্তীতে কিডনি বিকলের কারণ হয়ে ওঠে।

বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটনে সেরা গন্তব্যের স্বীকৃতিতে আবারো মালদ্বীপ। আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউ-কে ফুড অ্যান্ড ট্রাভেলস ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডস ২০২২ সালে মালদ্বীপকে ‘বছরের সেরা লং-হল ডেস্টিনেশন’ হিসেবে মনোনীত করে।

বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটন সূচকে মালদ্বীপের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে কানাডা, ইকুয়েডর, ফিজি, জাপান, নামিবিয়া, সেশেলস, দক্ষিণ আফ্রিকা, দক্ষিণ কোরিয়া এবং ক্যারিবিয়ানের মতো ভাগা ভাগা দেশগুলো। এ সকল দেশগুলোকে পিছনে পেলে বছরের সেরা দূরপাল্লার গন্তব্যের চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে বহু দ্বীপের সমাহার দেশটি।

এতে আন্তর্জাতিক সংস্থা ইউ-কে ফুড অ্যান্ড ট্রাভেলস ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডসের বিষয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয় ‘গ্যাস্ট্রোনমিক’ বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ভ্রমণ প্রকাশনাগুলির মধ্যে একটি। এছাড়াও যুক্তরাজ্যের ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল ম্যাগাজিনের সাতটি বিশ্বব্যাপী সংস্করণ রয়েছে, যা গত ২৫ বছর ধরে গ্রিন পি পাবলিশিং লিমিটেড দ্বারা প্রকাশিত হয়ে আসছে। চলতি বছরের জানুয়ারীর শেষের দিকে লন্ডনের রয়্যাল অটোমোবাইল ক্লাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই পুরষ্কারগুলি উপস্থাপন করা হয়।

প্রতিবেদনে করোনাভাইরাস মহামারি ধাক্কার পর বৈশ্বিক ভ্রমণ ও পর্যটন খাতের পুনরুদ্ধারের তথ্য উঠে এসেছে। এতে বলা হয়েছে, এ খাতে বিশ্ব পুনরুদ্ধার হলেও এর গতি মন্থর এবং অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। অপরদিকে মালদ্বীপ এই চ্যালেঞ্জে সফলতা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভ্রমণ ও পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন, টেকসই ব্যবস্থা এবং নিরাপত্তা ও স্থিতিস্থাপকতার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে নির্বাচিত করে ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ডস প্রকাশনা প্রতিষ্ঠার পর থেকে।

ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল ম্যাগাজিন রিডার অ্যাওয়ার্ড আতিথেয়তা এবং ভ্রমণের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। যেমন, শীর্ষস্থানীয় খাবারের দোকান, শেফ, হোটেল, অবস্থান, ট্যুর গাইড, ক্রুজ লাইন এবং এয়ারলাইন্স সহ ২৩টি বিভাগে সম্মাননা প্রদান করে, এটি পর্যটন খাতের খাদ্য ও পানীয় শিল্পের “ক্রেম দে লা ক্রেম” কে সম্মান ও স্বীকৃতি দেয়।

সেরা গন্তব্যের দেশ হিসেবে পর্যটকদের মান বজায় রাখার জন্য মালদ্বীপের (এমএমপিআরসি) কোম্পানি গত বছরে শেষের দিকে বেশ কয়েকটি ইভেন্টের আয়োজন করেছিল। এর মধ্যে মালদ্বীপের (WTM) কোম্পানি লন্ডন ২০২২-এর মতো গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য প্রদর্শনীতে যোগ দেয় এবং পরিচিতি পরিদর্শনের সাথে লন্ডন, ম্যানচেস্টার এবং নিউক্যাসেলে গন্তব্যের রোডশোতে অংশগ্রহণ করেন।

এতে উভয়ে দেশের সংস্থা ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের মতো যৌথ বিপণন উদ্যোগেও অন্তর্ভুক্ত ছিল। এছাড়াও চলতি বছরে এমএমপিআরসি-এর অনেক অনুরূপ ইভেন্ট নির্ধারিত রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন।

প্রসঙ্গত, ২০২২ এছাড়াও মালদ্বীপ ২২-এর ওয়ার্ল্ড ট্র্যাভেল অ্যাওয়ার্ডে “ওয়ার্ল্ডস লিডিং ডেস্টিনেশন” খেতাব জিতেছে টানা তৃতীয় বছরের জন্য। যা প্রথম কোনো ইভেন্টে মালদ্বীপের ইতিহাসে (MMPRC) এর ঐতিহাসিক “ওয়ার্ল্ডস লিডিং ট্যুরিস্ট বোর্ড”-এর গুরুত্বপূর্ণ খেতাব অর্জন করা।

রমজানে প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্য আমদানি বেশি হওয়ায় দেশে অস্বাভাবিকভাব মূল্যস্ফিতি বাড়বে না বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

রোববার (১২ মার্চ) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি, একনেক সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী জানান, যে পরিমাণ খাদ্যশষ্য আমদানি হয়েছে তাতে চলতি বছর মূল্যস্ফীতি সহনীয় থাকবে।

এদিকে গত সাত মাস ধরে মূল্যস্ফীতি ৮ শতাংশের ওপরে। রোববার বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো জানায়,
ফেব্রুয়ারিতে পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট ভিত্তিতে মুদ্রাস্ফীতির হার শূণ্য দশমিক ২১ শতাংশ পয়েন্ট বেড়ে ৮ দশমিক ৭৮ শতাংশে পৌঁছেছে।

এ অবস্থায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ফিডের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় পোল্ট্রি খাতে দাম বেড়েছে। এটি আগের অবস্থানে আসতে সময় লাগবে। আর রমজানে ভোগ্যপণ্য কেনাকাটা বেশি হওয়ায় মূল্যস্ফীতি কিছুটা বাড়লেও তা অস্বাভাবিক হবে না বলে মনে করেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী।

এরআগে সকালে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে শুরু হয় একনেকের চলতি অর্থবছরের ৯ম বৈঠক। এতে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীপরিষদ সদস্য ও পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যরা। বৈঠকে ১২ হাজার ১৬৭ কেটি টাকা ব্যয়ে নতুন ৮টি প্রকল্পের অনুমোদন এবং ব্যয় বৃদ্ধি ছাড়াই মেয়াদ বাড়ানো হয় ৪টি প্রকল্পের।

নতুন প্রকল্পে বরাদ্দকৃত অর্থের মধ্যে সরকারি অর্থায়নের পরিমাণ প্রায় ৩ হাজার ৯৮ কোটি টাকা। এছাড়া ৮ হাজার ৯১২ কোটি টাকা যোগান মিলবে বিদেশি অর্থায়নে।

১২ হাজার ১৬৭ কোটি টাকা ব্যয়ে আট প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ৩ হাজার ৯৮ কোটি টাকা, বৈদেশিক ঋণ থেকে পাওয়া যাবে ৮ হাজার ৯১৩ কোটি টাকা এবং সংস্থাগুলোর নিজস্ব তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ১৫৬ কোটি টাকা।

রোববার (১২ মার্চ) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভা শুরু হয় বেলা সাড়ে ১১টায়। প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

সভাশেষে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানান পরিকল্পনা বিভাগের সচিব সত্যজিৎ কর্মকার। এসময় উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

দুই শর্তে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরো ছয় মাস বাড়ানোর মত দিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়। শর্তগুলো হল বাসায় থেকে চিকিৎসা নেওয়া এবং বিদেশ যেতে না পারা।

রোববার (১২ মার্চ) সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। 

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদনের বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। বাসায় থেকে চিকিৎসা নেওয়া এবং বিদেশ যেতে না পারার দুই শর্তে মুক্তির মেয়াদ আরো ছয় মাস বাড়ানোর মত দেওয়া হয়েছে। এই সময়ে খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত থাকবে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রায় দুই বছর জেলে ছিলেন।

সরকার নির্বাহী আদেশে সাজা স্থগিত করে দুটি শর্তে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়েছিল ২০২০ সালের ২৫ মার্চ। তখন দেশে করোনা মহামারি চলছিল। এরপর থেকে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ছয় মাস অন্তর অন্তর তার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে।

এক ম্যাচ হাতে রেখেই টি-২০ সিরিজে ইংল্যান্ডকে হারানোর কৃতিত্ব দেখাল বাংলাদেশ। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আজ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে স্নায়ুক্ষয়ী লড়াই শেষে অতিথি দলকে চার উইকেটে হারায় স্বাগতিকরা। তিন ম্যাচ সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে মঙ্গলবার একই মাঠে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে সাকিব আল হাসানের দল।  

ছোট টার্গেট তাড়া করতে নামা বাংলাদেশ সহজে জিততে পারেনি। ১৮তম ওভারে ১০৫ রানের সময় ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটে। তখন জয়ও অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। শেষ ১২ বলে প্রয়োজন পড়ে ১৩ রান। যদিও নাজমুল হোসেন শান্ত (৪৬*) ও তাসকিন আহমেদ (৮*) বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। ক্রিস জর্ডানের বলে টানা দুই বাউন্ডারি মেরে সব উৎকন্ঠার অবসান ঘটান বামহাতি ব্যাটার তাসকিন।

এটা টি২০তে বাংলাদেশের ১১তম সিরিজ জয়। ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়েকে এক ম্যাচের সিরিজে প্রথম হারায় টাইগাররা। ২০২১ সালে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ জয় করে বাংলাদেশ। এবার ঘরের মাঠে আরেক বড় দল বাংলাদেশের শিকার হলো।

লো-স্কোরিং ম্যাচে মেহেদী হাসান মিরাজের অনবদ্য বোলিংয়ে ইংল্যান্ডকে ১১৭ রানে অলআউট করার কৃতিত্ব দেখায় বাংলাদেশ। টস জিতে বোলিং বেছে নেয়া স্বাগতিকরা প্রথম ১০ ওভারে ইংলিশদের চার উইকেট শিকার করে এগিয়ে থাকে (৬৩/৪)। পরের ১০ ওভারে বাকি ছয় উইকেট হারিয়ে অতিথিরা বোর্ডে যোগ করতে পেরেছে মাত্র ৫৪ রান। বোলারদের গড়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে কষ্টার্জিত জয় তুলে নেয় টাইগাররা।  

এর আগে তৃতীয় ওভারে ওপেনার ডেভিড মালানকে সাজঘরে ফেরান পেসার তাসকিন আহমেদ। ছক্কা মারতে গিয়ে হাসান মাহমুদকে ক্যাচ দেন তিনি।

সপ্তম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসেই ফিল সল্টকে আউট করেন সাকিব আল হাসান। নিজের বলে রিটার্ন ক্যাচ নেন তিনি। পরের ওভারে হাসান মাহমুদও প্রথম আক্রমণে এসে বোল্ড করেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জস বাটলারকে। দলে ঢোকা মেহেদী হাসান মিরাজও প্রথমবার বোলিং এসেই সফলতা পান। তার বলে ডিপ মিডউইকেটে বদলি ফিল্ডার শামীম হোসেনকে ক্যাচ দেন মঈন আলী।

পঞ্চম উইকেটে ৩২ বলে ৩৪ রান যোগ করে বাংলাদেশের জন্য হুমকি হয়ে ওঠেন স্যাম কারান ও বেন ডাকেট। ১৫তম ওভারে কারানকে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে এই জুটি ভাঙেন মিরাজ। বিস্ময়কর হলেও সত্যি এর দুই দল পরই ক্রিস ওকসকেও তিনি স্ট্যাম্পিং করেন! ৯১ রানে ৬ উইকেট শিকার করে স্বস্তি ফেরে টাইগার শিবিরে।

বিগ হিটে সংকটময় পরিস্থিতি পাল্টে দেয়ার চেষ্টা করা ক্রিস জর্ডান ডিপ মিডউইকেটে ক্যাচ দেন রনি তালুকদারকে। ফলে তিনি মিরাজের চতুর্থ শিকারে পরিণত হন। ১২ রানে চার উইকেট, এটিই টি২০-তে তার সেরা বোলিং ফিগার।

মুস্তাফিজুর রহমানের করা ২০তম ওভারে বাকি তিন উইকেট হারায় ইংলিশরা। বেন ডাকেটের উইকটে শিকার করেন মুস্তাফিজ। এছাড়া রানআউটের শিকার হন রেহান আহমেদ ও জোফরা আর্চার।

ব্যাটার শামীম হোসেনের জায়গায় বাংলাদেশের একাদশে এসেছেন অলরাউন্ডার মিরাজ। আর ইংল্যান্ড দলে অভিষেক ঘটেছে ১৮ বছর বয়সী স্পিনার রেহান আহমেদের। তিনি খেলবেন পেসার মার্ক উডের জায়গায়।

প্রথম ম্যাচে ছয় উইকেটের সহজ জয় তুলে নেয় স্বাগতিক বাংলাদেশ।

জ্বালানি খাতে সরকার আর কোনো ভর্তুকি দেবে না বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি বলেছেন, বৈশ্বিক এ সংকটের সময়ে জ্বালানি খাতের ভবিষ্যৎ একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত যে দামে জ্বালানি কিনছে সে দামেই বিক্রি করছে। সরকার এখন সিদ্ধান্ত নিয়েছে,  জ্বালানি খাতে আর কোনো ভর্তুকি দেয়া হবে না।

রোববার (১২ মার্চ) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এফবিসিসিআই আয়োজিত বাংলাদেশ বিজনেস সামিটে এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নসরুল হামিদ বলেন, একটা গ্রামে ১০টা বাড়ি সেখানেও সাব-স্টেশন করা হয়েছে। যেখানে ১০০ বছর বিল দিলেও সেটার দাম উঠবে না। তারপরও আমরা সেখানে বিদ্যুতের ব্যবস্থা করেছি। আমরা সব জায়গায় ব্যবসা দেখিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন সবার ঘরে বিদ্যুৎ দেয়া হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কয়লা নিয়ে প্রচুর সমালোচনা শুনতে হয়েছে আমাদেরকে। অন্য দেশ কয়লা সব উঠিয়ে ফেলেছে, আমরা কেন তুলছি না। আমাদের তো অন্যদের মতো ঝাঁপিয়ে পড়লে হবে না। যেখানে হাজার হাজার একর কৃষিজমি নষ্ট হবে সেই কৃষকদের কী হবে? আমরা যদি পাওয়ায় প্লান্ট বানাই কৃষক সেখানে কাজ করতে পারবেন না। তারা তো বেকার হয়ে যাবেন। তাদেরকে জমির যে টাকা দেয়া হবে, দুইদিনে তা খরচ করে ফকির হয়ে যাবেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, সহকারী প্রক্টর, বিভিন্ন হলের আবাসিক শিক্ষকসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পদে থাকা ১৬ জন একযোগে পদত্যাগ করেছেন।

রোববার (১২ মার্চ ) ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে তারা ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কে এম নূর আহমদের কাছে তারা পদত্যাগপত্র জমা দেন।

পদত্যাগের বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক জানান, বিশ্ববিদ্যালয় কীভাবে চলছে সেটাই বুঝতে পারছি না। ভিসি স্যারের কাজের কোনো শৃঙ্খলা নাই। দুজন সিন্ডিকেট সদস্য যেভাবে চাচ্ছে, সেভাবে পরিচালিত হচ্ছে। বিভিন্ন নিয়োগে অনিয়ম হচ্ছে। তার দায়ভার আমাদের ওপর আসছে। ১৮টি পোস্টের ১৬ জন শিক্ষক বিভিন্ন প্রশাসনিক পর্ষদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগকারীদের মধ্যে সহকারী প্রক্টর ছয়জন ও বিভিন্ন আবাসিক হলের প্রভোস্ট রয়েছেন।

পদত্যাগ করা শিক্ষকরা হলেন, প্রক্টর ও শহীদ আব্দুর রব হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া, সহকারী প্রক্টর এস এম জিয়াউল ইসলাম, ড. শহীদুল ইসলাম, ড. রামেন্দু পারিয়াল, মো. শাহরিয়ার বুলবুল ও গোলাম কুদ্দুস লাভলু, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক ড. মো ওমর ফারুক, শাহজালাল হলের আবাসিক শিক্ষক মো. শাহরিয়ার বুলবুল, এ এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষক আনাবিল ইহসান, প্রীতিলতা হলের আবাসিক শিক্ষক ফারজানা আফরিন রূপা, শহীদ আব্দুর রব হলের আবাসিক শিক্ষক ড. এইচ এম আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, রমিজ আহমেদ সুলতান, শামসুন নাহার হলের আবাসিক শিক্ষক শাকিলা তাসমিন, খালেদা জিয়া হলের আবাসিক শিক্ষক ড. মো. শাহ আলম, নাসরিন আক্তার ও উম্মে হাবিবা এবং আলাওল হলের আবাসিক শিক্ষক ঝুলন ধর।

এদিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়ার পদত্যাগের পরপরই নতুন প্রক্টর হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মেরিন সায়েন্স ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ নুরুল আজিম সিকদার।

রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কেএম নূর আহমদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে নতুন প্রক্টর নিয়োগের বিষয়টি জানানো হয়। ১২ মার্চ থেকে নিয়ম মোতাবেক প্রদেয় ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাসহ পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত প্রক্টরের দায়িত্ব পালন করবেন।