TT Ads

মন ভালো রাখার ক্ষেত্রে খাবার হতে পারে অন্যতম সঙ্গী। এক্ষেত্রে খাবার মস্তিষ্কে হ্যাপি হরমোনের পরিমাণ বাড়াতে পারে। এই ধরনের খাবারের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ডিম, বেরি জাতীয় ফল ইত্যাদি।

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে চলার পথে খাবার হল অন্যতম সঙ্গী। খাবার আমাদের প্রধান জ্বালানীও বটে। খাবার থেকে সংগৃহীত শক্তির মাধ্যমেই আমরা জীবনে এগিয়ে যেতে পারি। তাই প্রতিটি মানুষকে অবশ্যই নিজের ডায়েট নিয়ে হতে হবে সচতেন।

এবার বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আমাদের গোটা দেহের পাশাপাশি মস্তিষ্কেরও লাগে নির্দিষ্ট কিছু উপাদান। আর এই উপাদনের বেশিরভাগ অংশই আমরা খাবারের মাধ্যমে গ্রহণ করে থাকি। এমনকী দেখা গিয়েছে, আপনি কতটা খুশি থাকতে পারেন, তা অনেকটাই নির্ভর করে আপনার ডায়েটের (Diet) উপর। তাই প্রতিটি মানুষকে অবশ্যই এই বিষয়টি নিয়ে হতে হবে সতর্ক।

এবার জানা যাক ঠিক কোন কোন খাবার হতে পারে মন ভালো রাখার সহযোগি-

​মৌসুমী ফল ও বেরি

মৌসুমী যে কোনও ফল খেলে শরীর ভালো হতে পারে। এমনকী মন ভালো করতেও পারে। তবে সবথেকে ভালো ফল মিলতে পারে বেরি (Berries) জাতীয় ফল খেতে পারলে। এক্ষেত্রে বেশিরভাগ ফলেই ভালো পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট (Antioxidant) থাকে।

এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের বিশেষ কিছু সমস্যার করতে পারে সমাধান। এমনকী মনের ভিতর ভালো কিছু হরমোন বের হয় ফল খেলে।

​স্বাস্থ্যকর তেল

মানুষের স্বাস্থ্য বিগড়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অনেকেই তেলকে দায়ী করেন। এক্ষেত্রে তেল খেলে হার্ট খারাপ হয় বলেই সকলে জানেন। তবে সব তেলকে কিন্তু এভাবে ভিলেনের মতো করে দেখলে চলবে না। বরং কিছু তেল শরীর ও মনের জন্য উপকারী হতে পারে।

এক্ষেত্রে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ তেল ব্যবহার করতে হবে। এবার অলিভ তেল সবথেকে ভালো বিকল্প হতে পারে। তাই মনের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে চাইল আপনি খেয়ে নিন এই তেলের রান্না।

​ডিম

আমাদের প্রায় প্রতিটি মানুষের বাড়িতেই পৌঁছে যায় এই ডিম (Egg)। তবে এরপরও অনেকেই এই খাদ্যকে মানুষ তেমন পাত্তা দিয়ে চলেন না। তবে জানলে অবাক হয়ে যাবেন যে ডিমও আমাদের মন ভালো রাখার ক্ষেত্রে অন্যতম কার্যকরী খাদ্য হতে পারে।

মূলত ডিমের মধ্যে রয়েছে ভালো পরিমাণে ভিটামিন বি১২ (Vitamin B12), ফলেট, প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাট। এই প্রতিটি খাদ্যই মস্তিষ্কের জন্য ভীষণভাবে প্রয়োজনীয়। এছাড়া ডিমের কুসুমে থাকে ভালো পরিমাণে ক্যারোটিনয়েডস (Carotenoids)। এই ক্যারোটিনয়েডস আপনার সদর্থক চিন্তা বাড়িয়ে দিতে পারে

​কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স যুক্ত খাবার

গ্লাইসেমিক ইনডেক্স (GI) বিষয়টি পুষ্টিবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে খুবই প্রয়োজনীয়। গ্লাইসেমিক ইনডেক্স বেশি থাকার অর্থ হল এই খাদ্য আপনার শরীরে দ্রুত বাড়িয়ে দিতে পারে সুগার লেভেল (Increase Sugar Level)। দেখা গেছে, আপনি গ্লাইসেমিক ইনডেক্স বেশি থাকা খাবার খেলে ঘুম আসতে শুরু করে। তাই প্রতিটি মানুষকে বলা হয়, কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স রয়েছে এমন খাবার থেকে। এবার ওটস, ডালিয়া, শাক ইত্যাদি হল কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স যুক্ত খাবার।

​ডার্ক চকোলেট

চকোলেট খেতে প্রায় প্রতিটি মানুষই ভালোবাসেন। এক্ষেত্রে চকোলেটও মুড ভালো রাখতে পারে। তবে সবধরনের চকোলেটের মধ্যে ডার্ক চকোলেট মুড ভালো রাখার কাজে বেশি কার্যকরী হতে পারে। চকোলেটের মধ্যে থাকা সুগার মস্তিষ্কে এন্ডরফিনের মাত্রাও বাড়িয়ে দিতে পারে। ফলে মন ভালো থাকে। তাই আর চিন্তা নেই।

TT Ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *