TT Ads

যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি বিমানবন্দরের বাফার জোন তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ)।

অর্থাৎ সেখানে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এটিঅ্যান্ডটি ও ভেরাইজন ছয় মাসের জন্য ফাইভজি সিগন্যাল নির্দিষ্ট করে দেবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি বিমানবন্দর এটিঅ্যান্ডটি ও ভেরাইজনের ফাইভজি নেটওয়ার্কের আওতার বাইরে থাকবে বলে জানায় তদারককারী সংস্থাটি। খবর গিজমোদো।

১৯ জানুয়ারি থেকে এ সেবা চালু হওয়ার কথা রয়েছে। এক বিবৃতিতে এফএএ বলেছে, ইন্টারনেট ব্যবহারের সময় তাতে বিঘ্ন ঘটা, ব্যবহারকারীর পরিমাণ বেড়ে গেলে কাজে ব্যাঘাত ঘটা, খারাপ আবহাওয়ার দিনে ও অবস্থানভেদে ইন্টারনেট ব্যবহারের সমস্যার সমাধান করতেই তৈরি হচ্ছে এ বাফার জোন।

অন্যদিকে জোনটি তৈরির ফলে ফাইভজির জন্য ব্যবহূত অ্যান্টেনার কারণে উড়োজাহাজের রাডার আল্টিমিটারে সঠিক তথ্য দিতে বিঘ্ন সৃষ্টি করবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকে। রাডার আল্টিমিটারের সাহায্যে পাইলটদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় ও তারা কোথায় নামবেন সে নির্দেশনা দেয়া হয়।

যে ৫০টি বিমানবন্দরকে বাফার জোনের আওতায় আনা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে ডালাস লাভ ফিল্ড, শিকাগোর ও’হেয়ার, উত্তর নিউ জার্সি, নিউইয়র্ক, অস্টিন, নাশভিলে, হাস্টন, লস অ্যাঞ্জেলেস, মিয়ামি, সিয়াটল ও সানফ্রান্সিসকো বিমানবন্দর।

TT Ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *